বাড়ি টেলিভিশন নিষিদ্ধ হওয়ার পর বেকার প্রসূন

নিষিদ্ধ হওয়ার পর বেকার প্রসূন

20
0

বলা না বলা রিপোর্ট :

আমাকে কেউ কাজে নেয় না- সরল স্বীকারোক্তি লাক্স তারকা প্রসূন আজাদের। মডেলিং, ছোট ও বড়পর্দায় সাবলীল অভিনয় উপহার দিয়ে জনপ্রিয়তা অর্জন করলেও ব্যক্তিগত নানা বিষয় নিয়ে হরহামেশাই সমালোচনার জন্ম দিয়েছেন এই তারকা অভিনেত্রী। সর্বশেষ ২০১৬ সালে রোকেয়া প্রাচী পরিচালিত স্বপ্ন সত্যি হতে পারে নাটকে অভিনয়কে কেন্দ্র করে পরিচালকের সঙ্গে প্রসূনের বচসা হয়। পরে তারা দুজনই সোশ্যাল মিডিয়ায় একে অন্যের বিরুদ্ধে অভিযোগের তীর ছোড়েন। রোকেয়া প্রাচী কয়েকটি নাট্য সংগঠনের কাছে প্রসূনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করলে তাকে এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়। নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ পার হওয়ার পর ২০১৭ সালের শেষের দিকে কাজে ফিরলেও এখন আর আগের মতো নিয়মিত অভিনয় করতে দেখা যায় না প্রসূনকে।

শৈশবেই শিশু প্রতিভা অন্বেষণমূলক নতুন কুঁড়ি প্রতিযোগিতায় অংশ নেন পুলিশ বাবা-মায়ের সন্তান প্রসূন। ঠিক তার ১০ বছর পর ২০১২ সালে লাক্স চ্যানেল আই সুপারস্টার প্রতিযোগিতায় তৃতীয় স্থান অর্জন করে সবার নজরে আসেন ময়মনসিংহের এই সুন্দরী। অবশ্য তার আগে তিনি গিয়াসউদ্দিন সেলিমের মতো গুণী পরিচালকের সান্নিধ্যে আসার সুযোগ পান। অবগুণ্ঠন নামের নাটকে কাজের মেয়ের চরিত্রে প্রথম অভিনয় করে প্রশংসিত হন প্রসূন। ২০০৯ সালে গিয়াসউদ্দিন সেলিমের মনপুরা সিনেমাসহ আরও কয়েকটি নাটকের সহকারী হিসেবেও কাজ করেন তিনি। কুহেলিকা নামে একটি সিনেমা পরিচালনার কাজও হাতে নেন প্রসূন আজাদ। তিনি বলা না বলার গল্প, মুম্বাসা, একটি মৃত্যুর গল্প, ৭১’র সেই দিনগুলোসহ অন্তত ২০টি নাটকে অভিনয় করেছেন। গত বছর একটি ধারাবাহিক নাটকে তাকে দেখা যায়।

২০১৪ সালে প্রসূনের চলচ্চিত্র অভিষেক হয় কাজী হায়াতের সর্বনাশা ইয়াবা চলচ্চিত্রের মাধ্যমে। পরের বছর অচেনা হৃদয় ছবিতে অভিনয় করেন তিনি। এছাড়া মুসাফির ও ইউটার্ন ছবিতে অতিথি চরিত্রে দেখা যায় তাকে। ২০১৬ সালে অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী মুহাইমিন সানকে বিয়ে করেন প্রসূন। কিন্তু তাদের বিয়ে টেকেনি। চলতি বছরের শুরুর দিকে বিচ্ছেদ হয়ে গেছে।

এখন পর্যন্ত বেশ কয়েকবার সমালোচনার জন্ম দিয়েছেন প্রসূন। ২০১৪ সালে সর্বনাশা ইয়াবা সিনেমাভিনয়ের পর ব্যক্তিগত জীবনেও তিনি মাদকাসক্ত বলে খবর চাউর হয়। বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে প্রসূনের তোলা আপত্তিকর ছবি ফেসবুকে প্রকাশিত হওয়ার জন্যও তাকে নিয়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে। সর্বশেষ অভিনেত্রী, নির্মাতা ও রাজনীতিবিদ রোকেয়া প্রাচীর সঙ্গে বসচায় জড়িয়ে বিতর্কিত হন প্রসূন। মূলত সেই ঘটনার পর থেকেই মিডিয়ায় অনিয়মিত হয়ে পড়েন তিনি।

প্রসূনের কথায়, আমি যে ধরনের কাজ করতে চাই সে ধরনের কাজে আমাকে কেউ নিতে চায় না। মনের মতো চরিত্র পাই না। বাস্তব জীবনের সঙ্গে মেলে এমন চরিত্র খুঁজছি। কিন্তু এ ধরনের কাজ পাচ্ছি না। কাজে অনিয়মিত হলেও ভক্তদের এক সুসংবাদ দিলেন নায়িকা। বললেন, নতুন একটি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে চুক্তিবদ্ধ হয়েছি। শিরোনাম বলতে পারছি না। এতে আমার চরিত্রের নাম উর্মিমালা। মনের মতো কাজ হাতে পেয়েছি। কাজটি পেয়ে আমি ভীষণ আনন্দিত।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here